“বিজয় দিবস ”  মুহা. কবির হোসেন 

আমার ষোলই ডিসেম্বর মহান বিজয় স্বাধীনতার

আকাশ বাতাস করে সমুজ্জ্বল বাঙ্গালীর অহংকার।

ষোলই ডিসেম্বর মহান স্বাধীনতার অহংকার,

বীর বাঙ্গালী হয়েছি স্বাধীন বিস্ময়ের বিশ্বায়ন।

 

ষোলই ডিসেম্বর আমার হৃদয়ের অহংকার

সাগর নদী ঊর্মি মালা গায় মুক্তির শ্লোগান।

ষোলই ডিসেম্বর সেদিন দুর্লভ অবিশ্বাস্য রেশ

যুগের হেলাল বঙ্গবন্ধুর স্বাধীন বাংলাদেশ।

 

ঐযে দেখ নীল আসমান শান্তির পায়রা উড়ে,

গর্বে বাঙ্গালীর হৃদয় বহমান শোণিত অশ্রু ঝরে।

বুকে রক্ত চোখে অশ্রু হৃদয়ে বজ্র হাহাকার

ত্রিশলক্ষ শহীদের রক্তে স্বাধীনতার অলঙ্কার!

 

একাত্তরে ঐক্যবদ্ধ বুকে বেঁধে পাষাণ,

ছাব্বিশে মার্চ করে শুরু মুক্তির আন্দোলন।

অষজেয় জয়ে জোর কদমে নিরস্ত্র বাঙ্গালী সবে

দীর্ঘ নয়মাস যুদ্ধ করে প্রাণের মায়া ছেড়ে,

 

বিজয়বেশে অবশেষে লাল সবুজের পতাকা ওড়ে

মুক্তির মিছিল স্বাধীনতার ছড়ায় দিগন্তরে।

রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে বিজয় বাঙ্গালী মহিমাময় ,

মুক্তিযুদ্ধের রক্তাক্ত বাংলাদেশ সেই সে গৌরবময়।

 

ছাপ্পান্ন হাজার বর্গ মাইলের এই বাঘের রাজ্য ছেড়ে

সশস্ত্র বাহিনী শিয়ালবেসে পালায় আত্মসমর্পণ করে।

ষোলই ডিসেম্বর পেলো নব্য সূর্যের সেদিন

সার্বভৌম শক্তি বাঙ্গালীর বাজে মর্মস্পর্শী বীন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *