মোঃ রায়হান কাজী এর একগুচ্ছ কবিতা

১.

সন্দেহ

মোঃ রায়হান কাজী

——————

মনের বাহুডোরে আজ নব্যতার সাথে,

আমি নই সব্য তোমার পৃথিবীতে।

ভদ্র হয়েও অভদ্র আমি যখন সবার কাছে,

কথা বলি হাসিমুখে উজ্জীবিত ধরণীর তলে।

কথা যখন হবে তোমাতে আমাতে,

সব কুয়াশা কাটবে আশা করি অচিরে।

আধুনিক রীতিটাকেই মেনে মাঝে মাঝে,

কাপড়চোপড়ে বখাটে ভাবে লোকজনে।

কথা যখন বলি লোকসমাগমে,

সন্দেহ যায় চুকে সবার মন থেকে।

 

এররও রক্ষা মেলেনা শেষে মিথ্যার কাছে,

জলাঞ্জলি দিতে হয় মানসম্মত রাস্তাঘাটে।

সব হিসাব নিকাশ কষে অত্মসম্মানের ভয়ে,

মাথা উঁচু করে, চুপ করে চলে আসি নীরে।

মনস্থির করি নির্জনে বস্তু অবস্তুর ভিড়ে,

ডাইরি পাতাখানা পড়ে থাকে এককোণে।

তবুও গল্প সাজায় তোমাকে নিয়ে,

রামধনুর সাতরঙা সাঁজে নতুন সূচকের মাঝে।

অদ্ভুত এই ধরনীর বুকে বিচিত্র দৃশ্যের সাথে,

প্রায়শই দেখা মিলে চেনা অচেনা প্রান্তের কাছে।

 

২.

শূন্যতায় ভাসি

মোঃ রায়হান কাজী

——————-

ভালোবাসা ভালো লাগা হারিয়ে ফেলেছি।

আমি ভাসি শূন্যতায় ভর করে।

আজ আমরা বাঁচি,আমরা হাসি।

শূন্য তাকে ঘিরে।

 

হয়তোবা দূর গগন তলে,

কিংবা সমুদ্রের অতুল গভীরতায়।

আমি আছি আমার মতো,

আমি আছি গভীর স্তব্ধতায়।

 

আমি হাসি আমি বাঁচি,

নিজের মতো।

 

নিজেকে দেখি, নিজেকে জানি।

নিজের মতো করে।

নিজেকে খুঁজে ফিরি,

অচেনা অজানা জায়গায়।

 

খুঁজে বাহির করতে চাই,

নিজের মধ্যে থাকা মনুষ্যত্বকে।

বিলিয়ে দিতে চাই,

নিজের মানবতাকে।

 

আঁকড়ে ধরতে চাই,

নিজের শিকড়কে।

ঘুরে দেখতে চাই,

জগতের মাঝে লুকিয়ে থাকা অমানুষিকতাকে।

 

জাগ্রত করতে চাই,

মানুষের বিবেক কে।

দেখাতে চাই মানবতাকে।

যদি মানবতাকে জাগ্রত করতে না পারি,

তবে হারিয়ে যেতে চাই শূন্যতারি মাঝে।

 

৩.

অপরিচিতা তুমি

মোঃ রায়হান কাজী

——————-

আকস্মিক ভাবে জানা ভয়ের সূচনা ঘটে,

মানুষের মনে ভয় ধরিয়ে দিয়েছিল হঠাৎ করে।

তাই চলে গিয়েছিলাম তোমার থেকে একটি দূরে,

আবার এসেছি ফিরে তোমার চিরচেনা প্রান্তের দ্বারে।

 

দেখা হয়েছিল কোনো এক বসন্ত বিকালে,

গ্রীষ্মের দাবদাহের মাঝে এসেছি ফিরে।

লাল টি-শার্ট আর তোমার ধূসর বোরকার সাথে,

মিলিয়ে নিবো দুটি মন এক করে অবেলাতে।

 

যদিও আগের মতো লোকজন চোখে পড়েনা,

এখন আর রেললাইনের পাশে রাস্তার মোড়ে।

তবুও জায়গাখানা আছে আগের মতো,

সবি আছে অপরিচিতা তুমি ছাড়া এই পথে।

 

এখনো হয়নি জানা তোমার নামখানা,

ঠিক জেনে নিবো সময় হলে তোমার কাছ থেকে।

তুমি কী আসবেনা আরেকটি বার আমার কাছে?

সেই অপেক্ষায় প্রহর কাটে ধূসর হয়ে দিনগুলোতে।

 

এ সময়ে একাকিত্বের মাঝে ভাবছি বসে তোমাকে,

সংশয় বাড়ে মনের কিনারা জুড়ে আকাশে।

না জানি হারাও নিমিষে স্রোতের টানে,

কতসব প্রশ্ন জাগে মনের গহীন কোণে?

 

৪.

 

অবগুন্ঠিত হৃদয়

মোঃ রায়হান কাজী

———————————

অবগুন্ঠিত কুন্ঠিত জীবনের মাঝে ,

বিড়ম্বনা বাড়ে তোমার কাছে এসেও না আসাতে।

হৃদয়দল বাহিরভূবনে দরজা খুলিয়া,

অপেক্ষায় আছি তোমার আবার ফিরে আসাতে।

সংগীত মুখরিত ভুবনে ধ্বনি বাজে বুক পিঞ্জরে,

আজি জাগ্রত দ্বারে তোমায় খুঁজি চেনা পথে।

নিবিড় বেদনার পৃথিবীতে মুখরিত লোকজন,

আপনপর ভুলিয়া হাসিমুখ খানা দেখাতে।

সৌরভবিহল রজনী ফুঁটে দ্বারে দ্বারে,

ফুলের গন্ধের মাধুরী বিছিয়ে।

 

দূর আকাশের নিচে আজও পথ চেয়ে আছি,

আহ্বানের বার্তা নিয়ে অপরিচিতার ফেরাতে।

ব্যকুল বসুন্ধরা কবে সাজবে নতুন করে,

দখিনা বাতাসের সাথে পল্লবে পল্লবে৷

রৌদ্র ছায়ার খেলাতে মুষ্টিবদ্ধ করি তোমাকে,

এরি মাঝে হাসি গাই আপন মনে।

সারাক্ষণ নয়ন জোড়া মেলে রবো দাঁড়িয়ে,

কখন পাবো দেখা তোমার কোন সে শুভক্ষণে।

জীবনের বহে যত অশান্তির ছায়া,

তুমি এসে কাটিয়ে দিবে প্রেমের মায়াতে।

 

 

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *